image

দশ দিনের মধ্যে ওয়ার্ড কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার নির্দেশ নগর বিএনপির

image

আগামী ১০ দিনের মধ্যে নগরের বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ড বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে চিঠি দিয়েছে নগর বিএনপি। গত শুক্রবার (১৬ আগস্ট) নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর সাক্ষরিত একটি চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়। আগামী ২৬ আগস্টের মধ্যে নগর বিএনপির দপ্তর সম্পাদকের মাধ্যমে সাধারণ সম্পাদক বরাবর এসব পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা জমা দিতে নিদের্শনা দেয়া হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আগামী ২৬ আগস্টের মধ্যে যেসব থানা বা ওয়ার্ডের পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা দেয়া হবেনা সেসব কমিটি নগর বিএনপির বিশেষ ক্ষমতাবলে বিলুপ্ত করা হবে।

জানা গেছে, নগর বিএনপির সাংগঠনিক ১৫ টি থানার মধ্যে দুইটিতে পূর্ণাঙ্গ কমিটি হলেও এখনো সুপার ফাইভ দিয়ে চলছে বাকি ১৩ থানা বিএনপির কার্যক্রম। এর মধ্যে খুলশী থানা বিএনপি চলছে আগের কমিটি দিয়েই। বাকি ১২ থানা বিএনপি ও অপূর্ণাঙ্গ থাকা ৪৩ টি ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে আগামী ২৬ তারিখের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করে জমা দিতে হবে। যে সব থানা ও ওয়ার্ড নির্ধারিত সময়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে পারবে না তাদের অব্যাহতি দেওয়া হবে বলে চিঠিতে হুশিয়ারি করেছে নগর বিএনপি। 

নগর বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ইদ্রিস আলী বলেন, নগর বিএনপির পাঠানো চিঠি ইতিমধ্যে প্রায় থানা ও ওয়ার্ড কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে। আশা করি সবার হাতে সোমবারের মধ্যে এ চিঠি পৌছে যাবে। দলকে শক্তিশালী করতে নগর বিএনপি ওয়ার্ড ও থানা পর্যায়ের কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইতিমধ্যে ২০ ওয়ার্ডে কমিটি পূর্ণাঙ্গ আছে, ৬ ওয়ার্ডে আহবায়ক কমিটি আছে বাকি ১৭ টি ওয়ার্ডে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হবে। 

চিঠি সূত্র জানায়, তৃণমূল পর্যায়ে বিএনপিকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে নগর বিএনপির আওতাধীন থানা ও ওয়ার্ড কমিটি পূর্ণাঙ্গ করার জন্য বলা হয়েছে। এর আগে বিগত ২০১৭ সালের জুলাই মাসের ১৭ তারিখ একবার এই নির্দেশনা দিলেও কোন থানা বা ওয়ার্ড পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে পারেনি। যার কারণে দ্বিতীয় বারের মতো গত ১৬ অগাষ্ট থানা ও ওয়ার্ড বিএনপির কমিটি ১০ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা দপ্তর সম্পাদকের মাধ্যমে নগর বিএনপির সভাপতি সাধারণ সম্পাদককে জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। যদি কোন থানা বা ওয়ার্ড এ নির্দেশনা মোতাবেক কমিটি পূর্ণাঙ্গ করে জমা দিতে না পারে তাহলে নগর বিএনপির সাংগঠনিক ক্ষমতাবলে কোন প্রকার কারণ দর্শানোর নোটিশ ছাড়াই পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে উক্ত কমিটি বিলুপ্ত করা হবে। 

নগর বিএনপির ১৫ টি থানা কমিটির মধ্যে আকবর শাহ থানা ও কোতোয়ালী থানায় বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়েছে। খুলশী থানা চলছে আগের কমিটি দিয়ে। বাকি ১২ থানা কমিটির মধ্যে ২০১৭ সালের আগষ্টে ৫ সদস্য বিশিষ্ট হালিশহর থানা বিএনপির কমিটি ঘোষণা করা হয়। এতে মোশাররফ হোসেন দিপ্তীকে সভাপতি ও মো. জাহাঙ্গীরকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়।


একই বছরের ১৪ জুলাই হাজী বাবুল হককে সভাপতি ও জসিম উদ্দীন জিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে ২ সদস্য বিশিষ্ট পাহাড়তলী থানা বিএনপির কমিটি করা হয়। একই বছরের নভেম্বর মাসে সাবেক কমিশনার সেকান্দর চৌধুরীকে সভাপতি ও হাজী বাদশা মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬ জনের ডবলমুরিং থানা বিএনপির কমিটি করা হয়।

২০১৭ সালের ১৪ জুলাই আব্দুল্লাহ আল হারুণকে সভাপতি ও আবদুল কাদের জসিমকে সাধারণ সম্পাদক করে দুইজনের বায়েজিদ বোস্তামি থানা কমিটি, ফরিদ আহমদ বিএকে সভাপতি ও আফতাবুর রহমান শাহীনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৪ জনের বাকলিয়া থানা কমিটি, কমিশনার আজমকে সভাপতি ও শরিফ উদ্দীন খানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬ জন নিয়ে চান্দঁগাও থানা বিএনপির কমিটি, মামুনুল ইসলাম হুমায়ুনকে সভাপতি ও মুনির আহমেদ চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক করে ২ জনের পাঁচলাইশ থানা বিএনপির কমিটি ঘোষণা করা হয়।  

এরপর ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারী ডা. নুরুল আবছার কে সভাপতি ও শাহাবুদ্দীনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬ জন নিয়ে পতেঙ্গা থানা কমিটি, হানিফ সওদাগরকে সভাপতি জাহিদুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে বন্দর থানা কমিটি, সরফরাজ কাদের রাসেলকে সভাপতি ও রোকন উদ্দীন মাহমুদকে সাধারণ সম্পাদক  করে ৬ জনের ইপিজেড থানা বিএনপির কমিটি ও হাজী মো. সালাহ উদ্দীনকে সভাপতি ও হাবিবুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট সদরঘাট থানা বিএনপির কমিটি ঘোষণা করা হয়। 

সাইফুর রহমান বাবুলকে সভাপতি, আতাউল্লাহ বাবুকে সিনিয়র সহ-সভাপতি ও নুর হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে চকবাজার থানা বিএনপির কমিটি ঘোষণা করা হয়। তার মধ্যে চকবাজার থানা বিএনপির সভাপতি সাইফুর রহমান বাবুল ও সিনিয়র সহসভাপতি আতাউল্লাহ বাবু মৃত্যু বরণ করেছেন। তাদের শূণ্য পদে এখনো কাউকে দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। যার কারণে একজন দিয়ে চলছে গুরুত্বপূর্ণ চকবাজার থানা বিএনপির কার্যক্রম। 

নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, দলের তৃণমূল পর্যায়ে চাঙ্গা  ও নির্যাতিত নেতাকর্মীদের মূল্যায়ণ করা হবে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে। দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করে জমা দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এর আগে মৌখিকভাবে নির্দেশনা দিলেও এবার লিখিত ভাবে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আশা করি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আমরা পূর্ণাঙ্গ কমিটি হাতে পাবো।

সিভয়েস/এমআই/এএস

image

সম্পাদক : এম. নাসিরুল হক

ফোনঃ ০৩১২৮৫০৫৯০
ই-মেইল : news@cvoice24.com
news.cvoice24@gmail.com

সিভয়েস মিডিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান

আর কে আর ট্রেড সেন্টার
বাড়িঃ ২৩৪, নিচতলা, ঝাউতলা স্টেশন রোড দক্ষিণ খুলশী, চট্টগ্রাম

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি

Copyright © cvoice24.com 2018