image

আজ, রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ ,


মেয়রের পদ বড় নয়, রাজনীতিটাই বড়: নাছির

মেয়রের পদ বড় নয়, রাজনীতিটাই বড়: নাছির

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, মেয়রের পদ বড় নয়, রাজনীতিটাই বড়। আর মেয়র পদ না পেয়ে কোনোভাবেই হতাশ, বিক্ষুব্ধ বা নিরাশ নই। তবে একটি বিষয় আমাকে কষ্ট দিয়েছে। যে সংগঠনের জন্য জীবন-যৌবন দিয়েছি, তারাই আমাকে বঙ্গবন্ধুর খুনির দোসর বানাতে ওঠে পড়ে লেগেছে। অথচ আমি প্রথম পরিকল্পনা করে বঙ্গবন্ধুর খুনি কর্নেল (অব) রশিদের সভায় হামলা চালিয়েছিলাম। ফ্রিডম পার্টির নেতাকর্মীদের খুঁজে বের করে চট্টগ্রাম থেকে তাড়িয়েছিলাম। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর ‘৭৬ সালের জানুয়ারি মাসে সর্বপ্রথম আমরা image ৫-৬ জন মিলে মিছিল করেছিলাম।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ মন্তব্য করেন।  

নিজের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষের অপপ্রচারের কথা উল্লেখ করে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, কেউ যদি বলতেন মেয়র হতে চাই তাহলে আমি ছেড়ে দিতাম। কিন্তু আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচারে দলই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। 

তিনি বলেন, মনে রাখতে হবে– আমরা অনেক আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে তৈরি হয়েছি। আরেকজন আ জ ম নাছির তৈরি করতে অনেক বছর সময় লাগবে।

সততাকে বড় প্রাপ্তি উল্লেখ করে মেয়র বলেন, আমার বড় প্রাপ্তি হচ্ছে সততা। স্বচ্ছতার মধ্যে চসিকের দায়িত্ব পালন করেছি। চট্টগ্রামবাসী এতো ভালোবাসেন এটা আমার বোধগম্য ছিলো না। মানুষের সঙ্গে আমার সম্পৃক্ততা আছে। আমাকে কাজ পাগল বলা যায়। আমার বাবাও মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। খেলাধুলা আমার রক্তের সঙ্গে মিশে আছে।  

চট্টগ্রামবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানোর কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৯৯০ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত ২৫ বছরে ২৫৫০ কোটি টাকার কাজ হয়েছে। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। অনেক প্রকল্প দেওয়ার কারণে ৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার বেশি কাজ বাস্তবায়ন করেছি। আরও অনেক প্রকল্পের কাজ বাকি আছে। এলইডি লাইটের আওতায় আসছে পুরো শহরে। আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকা, এখানে সড়কবাতি ছিলো না। অন্ধকার থাকতো। আমি দায়িত্ব নেওয়ার পর লাইটিংয়ের আওতায় এনেছি। 

প্রসঙ্গত, চসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণের পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আওয়ামী লীগের কর্মীরা একটি ছবি প্রকাশ করেন ফেসবুকে। এই ছবি প্রকাশ করে প্রচার চালানো হয় যে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত এক আসামির পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মেয়র নাছিরের দীর্ঘদিন ব্যবসায়িক ও ব্যক্তিগত সম্পর্ক আছে। মেয়র নাছির মনে করেন, তাকে মনোনয়ন না দেয়ার পেছনে এসব অপপ্রচার কাজ করেছে।

-সিভয়েস/এমএম

আরও পড়ুন

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে শফি, গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

মাদারবাড়িতে তুচ্ছ ঘটনায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মরহুম নুর আলীর বিস্তারিত

সরকার ও বিজিএমইর নির্দেশ উপেক্ষিত, ইপিজেডে চলছে ২০ পোশাক কারখানা

সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিকে উপেক্ষা করে ইপিজেডের ২০ পোশাক কারখানার বিস্তারিত

নগরীতে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে অসহায়, দুস্থ ও নিম্ন আয়ের ২৮০টি বিস্তারিত

নিরানব্বই শতাংশ বিদেশ ফেরতের কোনো হদিস নেই

করোনা ভাইরাস প্রভাবে বিদেশ থেকে চট্টগ্রামে আসা নিরানব্বই শতাংশ প্রবাসীর বিস্তারিত

সামাজিক দূরত্ব নয়, প্রয়োজন ব্যক্তিগত দূরত্ব

কভিড-১৯ নামের করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব নয় বরং প্রয়োজন বিস্তারিত

নগরীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ২৪ হাজার টাকা জরিমানা

নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কোয়ারান্টাইন না মানায় ও দ্রব্যমূল্যে বিস্তারিত

ঘরে ঘরে জেলা প্রশাসনের খাদ্য বিতরণ শুরু

করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত দিনমজুরদের ঘরে ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বিস্তারিত

খুলশীতে ত্রাণ বিতরণে গিয়ে হামলার শিকার যুবক

নগরের খুলশী থানা এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছে এক যুবক। বিস্তারিত

মেয়র নাছিরের ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী পাবে ৩ হাজার পরিবার

করোনা পরিস্থিতিতে অসহায়, দরিদ্র ও নিম্ন আয়ের ৩ হাজার পরিবারকে খাদ্য বিস্তারিত

সর্বশেষ

মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে শফি, গ্রেপ্তার হয়নি কেউ

মাদারবাড়িতে তুচ্ছ ঘটনায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মরহুম নুর আলীর বিস্তারিত

সরকার ও বিজিএমইর নির্দেশ উপেক্ষিত, ইপিজেডে চলছে ২০ পোশাক কারখানা

সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটিকে উপেক্ষা করে ইপিজেডের ২০ পোশাক কারখানার বিস্তারিত

নগরীতে নিম্ন আয়ের মানুষের মাঝে জেলা প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে অসহায়, দুস্থ ও নিম্ন আয়ের ২৮০টি বিস্তারিত

লোহাগাড়ায় ভাইয়ের হাতে ভাই খুন, আহত ১

লোহাগাড়া উপজেলার কলাউজান কানুরাম বাজার হাজির পাড়া লইতার বাপের বাড়ি এলাকায় বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি