image

আজ, শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ,


বাঁশখালীতে বাঙ্গি ও তরমুজ চাষীদের মুখে হাসির ঝিলিক

বাঁশখালীর পিএবি সড়কে চৈত্রের বাহারি ফলের হাট

বাঁশখালীর পিএবি সড়কে চৈত্রের বাহারি ফলের হাট

ছবি : সিভয়েস

চট্টগ্রামের আনোয়ারা-বাঁশখালী উপজেলার মধ্যবর্তী শঙ্খনদীর উপর নির্মিত তৈলারদ্বীপ ব্রীজের পূর্ব পাড়ে বাঁশখালী পুকুরিয়া ইউনিয়নের শুরুতেই ভোরের আলো ফুটতেই কেবলই দিগন্ত জোড়া সবুজ-হলুদের সংমিশ্রণে চৈত্রের বাহারি মৌসুমী ফল বাঙ্গি ও তরমুজের (ফুট) সমারোহ।

প্রায় সাড়ে তিন মাস নিবিড় পরিচর্যার পর পুকুরিয়া অংশেই শঙ্খ নদীর তীরে আনোয়ারা-বাঁশখালী ডুকতেই পিএবি প্রধান সড়কে কোলাহলমুক্ত পরিবেশে প্রতিদিন ভোর থেকে রাত পযর্ন্ত চলছে বাঙ্গি ও তরমুজের হাট। বাঙ্গি চাষে বেশ লাভবান হচ্ছেন বাঁশখালী উপজেলার কৃষকরা। নায্য দাম পেয়ে চাষিদের মুখে হাসির ঝিলিক।

পেঁপে, পেয়ারা, লিচু ও আম জাম মিষ্টি কুমড়ার সহ image বিভিন্ন শাক সবজির পাশাপাশি কৃষকরা সাথি ফসল হিসাবে বাঙ্গির চাষ করছেন। বাঙ্গি চাষ অধিক লাভজনক ও ফলন বেশি হওয়ায় এ উপজেলার কৃষকরা দিন দিন এ চাষে আগ্রহী হচ্ছেন। অন্যান্য ফসল আবাদের চেয়ে অল্প পুজি বিনিয়োগ করে এটি চাষের মাধ্যমে তারা আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার পাশাপাশি সাংসারিক নিত্য প্রয়োজনীয় খরচ মেটাচ্ছেন এ বাঙ্গি চাষের মাধ্যমে।

২০১১ সাল থেকে শুরু করে আনোয়ারা-বাঁশখালী উপজেলার মধ্যবর্তী  তৈলারদ্বীপ ব্রীজের পূর্ব পার্শ্বে বাঁশখালী পুকুরিয়া ইউনিয়নে ডুকতেই  বাঙ্গি-তরমুজের হাট। বর্তমানে স্থানীয় বাজারে বড় আকারের বাঙ্গির দাম ১৫০-২০০ টাকা, মাঝারির দাম ১০০-১৫০ টাকা এবং ছোটটির দাম ৫০-৫৫ টাকা। প্রতিদিন দুই শতাধিক ব্যবসায়ীরা এসব ফল নিয়ে ভোর সকালে সূর্য উদয় হওয়া থেকে শুরু করে রাত পযর্ন্ত এ ফল বিক্রি করেন সাধারণ যাত্রীদের কাছে। এমনকি চট্টগ্রাম-কক্সবাজারের বিকল্প পিএবি প্রধান সড়ক দিয়ে আনোয়ারা, বাঁশখালী, সাতকানিয়া(আংশিক), পেকুয়া, চকরিয়া, কুতুবদিয়া-মহেশখালীসহ কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন উপজেলায় চলাচল করা যাত্রীরাও গাড়ি থামিয়ে কিনে নেন সুস্বাধু এসব ফল।

সরেজমিনে বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে পুকুরিয়া চাঁদপুর তৈলারদ্বীপ ব্রীজের ২ পাশেই প্রধান সড়কে বাঙ্গি বিক্রি করতে আসা চাষিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২০১১ সালের শুরুর দিকে প্রথম প্রথম কয়েকজন চাষি সড়কের উপর বাঙ্গি রাখতেন ¯Íূপ করে। প্রতিনিয়ত পথচারীরা ও খুচরা ব্যবসায়ীরা সেখান থেকে কিনে নিয়ে যেতেন। তাদের দেখাদেখি অন্যান্য চাষিরাও ওখানে বাঙ্গি ও তরমুজের হাট বসাতে শুরু করেন। এভাবে এই সড়কেই বিচরণ হতে থাকে বাঙ্গির হাট।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এই মৌসুমে বাঁশখালী উপকূলীয় পুকুরিয়া, সাধনপুর, বানীগ্রাম, বাহারছড়া, গন্ডামারা, সরল, খানখানাবাদ, চাম্বল, নাপোড়া ও পুঁইছড়ি এলাকায় তরমুজ ও বাঙ্গির ব্যাপক চাষাবাদ হয়েছে। প্রতিবছরের মত এ বছর ফলন হয়েছে ভাল। তবে শুরু থেকেই ক্রেতাদের মধ্যে তরমুজের প্রতি আগ্রহ বেশি থাকায় দাম একটু বাড়তি রয়েছে। তবে শেষের দিকে কমে আসবে বলেও জানান কৃষকরা।

পুকুরিয়ার চাঁনপুর এলাকার চাষী মিজান ও ফোরকান বলেন, এ বছর কোনো প্রকার প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হওয়ায় এবং পোকার উপদব্র কম থাকায় বাঙ্গির লাভজনক উৎপাদন হয়েছে।’ তাই তো পুকুরিয়া অংশের শঙ্খনদীর তীরে আমাদের মত চাষিরা খুশিতে আত্মহারা। উৎপাদিত ফসল নিয়ে আশায় বুক বেঁধেছেন অনেকে। প্রতিবছরের মত এ বছর আমরা মোটামুটি লাভবান হচ্ছি। এ বছরেও আমরা প্রায় ২ খানি বাঙ্গির চাষ করে বর্তমানে আমরা নায্য মূল্য বিক্রি করে লাভ বান হচ্ছি। আমাদের এই খানকার বাঙ্গি অনেক সুস্বাদু হয়। মানুষ অগ্রিম টাকা দিয়ে দূর-দূরান্ত থেকে এখানে এসে বাঙ্গি ও তরমুজ ক্রয় করে। আমরা প্রায় ফল তৈলারদ্বীপ ব্রীজের পাশে পিএবি প্রধান সড়কে বিক্রি করি।

গত ৭-৮ বছর যাবৎ এই সড়কে আমরা খুচরা দামে বিক্রি করি। সকাল থেকে রাত পযর্ন্ত এই সড়কে চলাচলকারীরা পথচারীরা এইখান থেকে বাঙ্গি ও তরমুজ ক্রয় করে। এতে করে বাজারে নিয়ে যাওয়ার ঝামেলা কমে গেছে আমাদের। তবে অনেক ব্যবসায়ীরা অগ্রিম টাকা দিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আমাদের কাছ বাঙ্গি কিনে নিয়ে যায়। যার কারণে কোনো টেনশন করতে হয় না।

চট্টগ্রাম শহর থেকে পেকুয়া মগনামা যাওয়ার পথে কুতুবদিয়ার বাসিন্দা শাহরিয়ার মুহাম্মদ ছোটন বলেন, আমি প্রতি সপ্তাহে নিজ কর্মস্থল চট্টগ্রাম শহর থেকে কুতুবদিয়া যাওয়ার পথে এইখান থেকে প্রতিনিয়ত বাঙ্গি ক্রয় করি। এখানকার বাঙ্গি অত্যন্ত মজার সুস্বাধু। দামেও কম। তাই এখানকার বাঙ্গি যেমন সুস্বাদু, তেমন পুষ্টি সমৃদ্ধ তাই এই উপজেলার বাঙ্গি ও তরমুজের কদর সারাদেশেই।

বাঁশখালী উপজেলা কৃষি অফিসার আবু ছালেক বলেন, ‘বাঙ্গির বাম্পার ফলন দেখে মন জুড়িয়ে যায়। যেকোনো সহযোগিতার জন্য আমরা প্রস্তুত। অনেক কৃষক আমাদের থেকে বিভিন্ন সহযোগিতা এবং পরার্মশ নিয়ে থাকে। কৃষকরা একটু পরিশ্রমী হলে বহুমুখী ফসল উৎপাদন করে আরও বেশি সফল হতে পারবে।

-সিভয়েস/এসসি

আরও পড়ুন

আনোয়ারায় চেক প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার ১

আনোয়ারায় চেক প্রতারণা মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামী মো. ইদ্রিস (৩০)কে বিস্তারিত

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা 

ভবনের দেয়ালের বিভিন্ন অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। ছাদ থেকে খসে পড়ছে নির্মাণ বিস্তারিত

বোয়ালখালীতে মাদক নির্মুলে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ সাংসদ মোসলেম উদ্দিনের

বোয়ালখালীতে মাদক নির্মূলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে থানার ভারপ্রাপ্ত বিস্তারিত

আনোয়ারায় ইয়াবাসহ যুবক গ্রেপ্তার

আনোয়ারায় ২৮০পিস ইয়াবাসহ মো. ইউসুফ (২২) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে বিস্তারিত

বাঁশখালীতে শিশু শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ

বাঁশখালীতে মো. হাফেজ জমির (৩২) নামে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৯ বছরের এক শিশু বিস্তারিত

অভ্যর্থনা না জানানোয় নবাগত ইউএনও’কে শাসালেন এমপি নদভী

সাতকানিয়ায় আইন-শৃংখলা কমিটির মিটিং থেকে বের হয়ে রিসিভ না করায় উপজেলার বিস্তারিত

বোয়ালখালীতে শ্রী মন্দির উদ্বোধন বৃহস্পতিবার

বোয়ালখালী উপজেলার আকুবদণ্ডী কধুরখীল দক্ষিণ পাড়া মা আনন্দময়ী ধামের বিস্তারিত

বাঁশখালীতে ৩৩ হাজার ভোল্টের বিদ্যুতের খুঁটি রেখেই ভবন নির্মাণ!

বাঁশখালীতে ৩৩ হাজার ভোল্টের বিদ্যুৎ লাইনের খুঁটি ভেতরে রেখেই বাড়ি নির্মাণ বিস্তারিত

একুশের প্রেরণা বিশ্বময় আজীবন থাকবে চিরঞ্জীব 

স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আ.ম.ম মিনহাজুর বিস্তারিত

সর্বশেষ

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ৩০ ভূমি কর্মকর্তাকে বদলি

কোটি টাকাসহ সার্ভেয়ার আটকের ঘটনায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ৩০ ভূমি বিস্তারিত

আনোয়ারায় চেক প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার ১

আনোয়ারায় চেক প্রতারণা মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামী মো. ইদ্রিস (৩০)কে বিস্তারিত

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা 

ভবনের দেয়ালের বিভিন্ন অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। ছাদ থেকে খসে পড়ছে নির্মাণ বিস্তারিত

চসিক নির্বাচনে মেয়র পদে ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ৯জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি