image

আজ, শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ,


‘মরার উপর খাঁড়ার ঘা’

ধোপাছড়ি শীলঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

ধোপাছড়ি শীলঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

ছবি : সিভয়েস

চন্দনাইশ উপজেলার ধোপাছড়ি শীলঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ে সরকার নির্ধারিত ভর্তি ফি’র পরিমাণ থেকে অতিরিক্ত ফি আদায় এবং এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণে সরকারি নির্ধারিত ফি’র চেয়ে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। মাধ্যমিক, নিন্মমাধ্যমিক ও সংযুক্ত প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের প্রণীত ভর্তি নীতিমালা মানছে না স্কুল পরিচালনা পরিষদ। অতিরিক্ত আদায়কৃত টাকার পরিমাণ প্রায় লক্ষাধিক।

অভিযোগ আছে, ধোপাছড়ি শীলঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বিভিন্ন অযুহাতে ৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত সর্বোসাকুল্যে ৫৭০ টাকা এবং ৯ম থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত সর্বসাকুল্যে ৬২০ টাকা  এবং ফরম পূরণে বাবদ বিজ্ঞান বিভাগ image থেকে ২ হাজার ১শ’ টাকা, বাণিজ্য ও মানবিক বিভাগ থেকে ২ হাজার টাকা করে আদায় করা হয়।

জানা গেছে, প্রত্যন্ত পাহাড়ি জনপদ চন্দনাইশ উপজেলার ধোপাছড়ি ইউনিয়নে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে একমাত্র উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ‘ধোপাছড়ি শীলঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়’। নগরায়নের যুগে মানুষ যেখানে শহরমুখী, সেখানে ধোপাছড়ি ইউনিয়ন ও পুরানগড় ইউনিয়নের শীলঘাটা গ্রামের শিক্ষার্থীদের একমাত্র জ্ঞান আহরণের ভরসা স্কুলটি। এই  স্কুলটিতে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ১৫৩ জন,৭ম শ্রেণিতে ১৮৩ জন, ৮ম শ্রেণিতে ১৭৯ জন, ৯ম শ্রেণিতে ২২২, ১০ম শ্রেণিতে ১৭১ শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে বর্তমানে অধ্যানয়রত আছেন। এই স্কুলের অধিকাংশ শিক্ষার্থীর পরিবার দরিদ্রসীমার নিচে বসবাস করে।

মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন ভর্তি ফি সংক্রান্ত এক আদেশে বলা হয়, মাধ্যমিক, নিন্মমাধ্যমিক ও সংযুক্ত প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের ভর্তি নীতিমালায় বলা হয়েছে, সেশন চার্জসহ ভর্তি ফি সর্বসাকুল্যে মফস্বল/গ্রাম এলাকায় ৫০০ টাকা , পৌর (উপজেলা) এলাকায় ১ হাজার টাকা, পৌর (জেলা সদর) এলাকায় ২ হাজার টাকা এবং ঢাকা ব্যতীত অন্যান্য মেট্রোপলিটন এলাকায় ৩ হাজার টাকার বেশি হবে না এবং এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণ ফি বাবদ বিজ্ঞান বিভাগ ১ হাজার ৯৭০ টাকা এবং মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগ ১ হাজার ৮৫০ টাকা। একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বার্ষিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে এক শ্রেণি থেকে অন্য শ্রেণিতে ভর্তির ক্ষেত্রে সেশন চার্জ নেয়া গেলেও পুনঃভর্তির ফি নেয়া যাবে না। আর ফি আদায়ে সরকারি বিধিবিধান অনুসরণ করা না হলে প্রচলিত আইন ও বিধি অনুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই স্কুলের এসএসসি শিক্ষার্থী সিভয়েসকে বলেন, বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ২ হাজার ১শ’ টাকা এবং মানবিক ও বানিজ্য বিভাগ থেকে ২ হাজার টাকা এসএসসি ফর্ম পূরণ বাবদ আদায় করলেও  আমাদের কোনো রশিদ দেওয়া হয়নি। শুধু শিক্ষার্থীদের থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়ে পরবর্তীতে রশিদ প্রদানের আশ্বাস দিলেও এখনো পর্যন্ত কোনো রশিদ আমাদেরকে দেয়া হয়নি।

জেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ জসিম সিভয়েসকে বলেন, প্রধান শিক্ষক একার পক্ষে বেশি ফি আদায় করা সম্ভব না , এখানে অবশ্যই স্কুল কমিটি জড়িত থাকে। কারণ প্রধান শিক্ষক এবং স্কুল কমিটির সভাপতির স্বাক্ষর ছাড়া কোনো টাকা লেনদেনের সুযোগ নাই।

তবে অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়ে বারবার এড়িয়ে যান স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি অশোক বড়ুয়া। এ বিষয়ে তিনি সিভয়েসকে বলেন, অতিরিক্ত ফি আদায়ের ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। যদি কোনো অভিভাবক লিখিত অভিযোগ করে, টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করব। তবে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের বিষয়টি স্বীকার করেছেন ধোপাছড়ি শীলঘাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ ইসহাক। তিনি সিভয়েসকে বলেন, স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের জন্য টাকা দেয় না এবং সরকারি কোনো সহযোগিতা আসে না। তাই অনেকটা বাধ্য হয়ে এই অতিরিক্ত টাকা আদায় করতে হচ্ছে। স্কুলে এমপিও ভুক্ত শিক্ষক আছেন ৯ জন,যেখানে স্কুলের প্রয়োজন ২০জন শিক্ষক। আমি যোগদান করার পর চুক্তিভিত্তিক কিছু শিক্ষক নিয়েছি যাঁদের বেতন দিতে হয় শিক্ষার্থীদের টাকা থেকে।

অভিভাবকরা বলছেন, সরকারের নির্ধারিত ফি’র চেয়ে বেশি টাকা নিয়ে স্কুলের কর্তৃপক্ষ গরীব শিক্ষার্থীদের হক মারছে। প্রধান শিক্ষক প্রত্যন্ত অঞ্চল হওয়াতে নিজের ইচ্ছেমত অনিয়মকে নিয়মে পরিণত করছে।

শিক্ষা অধিদপ্তর চট্টগ্রামের  আঞ্চলিক পরিচালক দেবব্রত দাশ সিভয়েসকে বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বেশি ফি আদায় করলে তা অবশ্যই শিক্ষার্থীদের ফেরত দিতে হবে ,অন্যথায় আইন অনুয়ায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তাছাড়া অতিরিক্ত ভর্তি ফি ও ফরম ফিলআপ’র ক্ষেত্রে অতিরিক্ত টাকা আদায় করাটাও অপরাধ।

-সিভয়েস/এসসি

আরও পড়ুন

সহজে মিলছে এন্টিবায়োটিক, বাড়ছে ঝুঁকি, সীমাবদ্ধ নজরদারি

প্রেসক্রিপশন ছাড়া ওষুধ বিক্রির ব্যাপারে সরকারের নীতিমালা থাকলেও, উপযুক্ত বিস্তারিত

দিনে কর্ম কমিশনের অফিস সহায়ক, রাতে দোকানি, তাও মূল ফটকের সামনে!

নগরের চকবাজার থানা এলাকায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (চমেক) পূর্ব বিস্তারিত

স্বার্থান্বেষী মহল যেন চবি’র সৌন্দর্য হরণেই ব্যস্ত!

কোনো নির্বাচনী আমেজ বা নির্দিষ্ট কোন উৎসব নয়। সারাবছরই বিভিন্ন অজুহাতে বিস্তারিত

দিনদুপুরে ফুটপাতেই ‘চোরাই মার্কেট’, নীরব প্রশাসন

নগরের পুরাতন এবং নতুন রেল স্টেশনের মাঝামাঝি এলাকায় ফুটপাত দখল করে গড়ে বিস্তারিত

মাস্ক নিয়ে ব্যবসায়ীদের ছিনিমিনি, বাড়তি দামে মিলছে মাস্ক

চীনে ছড়ানো ‘করোনা’ ভাইরাস থেকে রেহাই পেতে মাস্ক ব্যবহারের পরামর্শ বিস্তারিত

হ্যালো ওসি! ফুটপাত নাকি ফলমন্ডি?

ফুটপাত দখলমুক্ত রাখতে মেয়র নাছিরের জিরো টলারেন্স ঘোষণা দেয়ার পরও হাঁটার বিস্তারিত

শিশুবান্ধব ‘খাস্রাং রিসোর্ট’, থাকছে সুইমিংপুলে সাঁতারের সুযোগ

আলুটিলা পর্যটন-রহস্যময় গুহা এবং তেরাংতৈবাকলাই (রিছাং ঝরণা) সংলগ্ন খাস্রাং বিস্তারিত

বিষ যন্ত্রণায় সাঙ্গুর আহাজারি, কানে শুনলেও নির্বিকার স্থানীয় প্রশাসন!

সাতকানিয়া এবং চন্দনাইশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কার্যকরী কোনো পদক্ষেপ না বিস্তারিত

পাহাড়ে ভ্রমণ পিপাসুদের নতুন আকর্ষণ ‘বাদুরগুহা’

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার মেরুং এলাকার একটি পাহাড়ি গুহা (যা স্থানীয়ভাবে বিস্তারিত

সর্বশেষ

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ৩০ ভূমি কর্মকর্তাকে বদলি

কোটি টাকাসহ সার্ভেয়ার আটকের ঘটনায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ৩০ ভূমি বিস্তারিত

আনোয়ারায় চেক প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার ১

আনোয়ারায় চেক প্রতারণা মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত পলাতক আসামী মো. ইদ্রিস (৩০)কে বিস্তারিত

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে ফটিকছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা সেবা 

ভবনের দেয়ালের বিভিন্ন অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। ছাদ থেকে খসে পড়ছে নির্মাণ বিস্তারিত

চসিক নির্বাচনে মেয়র পদে ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন জমা

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ৯জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি