image

আজ, মঙ্গলবার, ৭ জুলাই ২০২০ ,


পাহাড়ে ভ্রমণ পিপাসুদের নতুন আকর্ষণ ‘বাদুরগুহা’

পাহাড়ে ভ্রমণ পিপাসুদের নতুন আকর্ষণ ‘বাদুরগুহা’

ছবি : সিভয়েস

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার মেরুং এলাকার একটি পাহাড়ি গুহা (যা স্থানীয়ভাবে ‘বাদুরগুহা’ নামে পরিচিত) পর্যটকদের মনোযোগ আকর্ষণ করেছে। বাড়তি পাওনা রয়েছে গুহার পাশে একটি ঝরনা। তবে কিছুটা বুনো পথ ধরে পাহাড়ি ছড়া ও ঝরনা বেয়ে গুহা পর্যন্ত পৌছার পথটি কিছুটা কষ্টের। তাই এডভেঞ্চার টাইপের পর্যটকদের জন্যই এ গুহা দর্শন হবে আনন্দের; পারিবারিক ভ্রমণ না করাটাই হবে ভাল।

পাহাড়ের বিভিন্ন এলাকায় লুকিয়ে আছে অবাক করা অনেক প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য। দূর্গম এলাকা এবং মানুষের যাতায়াত না থাকার কারণে যা এখনো মানুষের আজানা। এরকম একটি গুহার সন্ধান পাওয়া গেছে image দীঘিনালাার মেরুং ইউনিয়নে।

ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়ার দূর্গম এলাকায় গুহাটি অবস্থিত। স্থানীয় ত্রিপুরাদের ভাষায় ‘তাবাক্ষ’। তাবা অর্থ বাদুর আর ক্ষ অর্থ গুহা; বাংলা ভাষায় বাদুরগুহা। এখন যদিও গুহার ভিতরে বাদুরের সংখ্যা অনেক কম; কিন্তু এক সময় এ গুহার ভিতরে ঝাঁকে ঝাঁকে বাদুরের দেখা মিলত তাই স্থানীয় ত্রিপুরারা গুহাটির নাম দিয়েছে তাবাক্ষ বা বাদুরগুহা।

সম্প্রতি সরেজমিনে গুহা পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, গুহার প্রবেশ মুখের পাশেই একদল তরুণ রান্না করছে। তারা সকলেই গুহা দেখতে এসেছিল খাগড়াছড়ি জেলা সদর থেকে। তরুণ কান্তি ত্রিপুরা (১৯), কান্তি ত্রিপুরা (১৮) জানান, গুহাটি অসাধারণ সুন্দর; গুহার ছাদ প্রায় ৩০ ফুট উঁচূ যা দেখে মনে হয় কোনো কারিগর নিখূঁত হাতে পাকা করে রেখেছেন।

সরেজমিনে দেখে তাদের কথার সত্যতা মিলে। গুহার প্রস্ত প্রায় ৩ ফুট; গুহার ভিতরে প্রবেশ করে প্রায় ১৭০ ফুট যাওয়া হয়েছে। এরপর মাঝপথে একটি পাথর রয়েছে, সে পাথরের ওপাশেও আরো দেখা গেলেও সাথে পর্যাপ্ত আলো না থাকার কারণে আর যাওয়া হয়নি।

গুহা দেখতে যাওয়া বোয়ালখালি বাজার এলাকার অজিত বড়ুয়া (৩৮) জানান, গুহায় প্রবেশ মুখের আগেই একটি ঝরনা। সে ঝরনার পাশ দিয়ে পাহাড়ি লতা ধরে ঝরনার পাহাড়টি বেয়ে বেয়ে নামতে হয়। যা এক অসাধারণ অনুভূতির সৃষ্টি করে। আর গুহাটিও নিঃসন্দেহে অনেক সুন্দর; এত বেশি উচ্চতার গুহা আর কোথাও আছে কিনা তাও সন্দেহ।

আরেক পর্যটক হিরেন্দ্র কুমার ত্রিপুরা (৩৫) জানান, নতুন করে আবিস্কার হলেও গুহাটি অসাধারণ সুন্দর। গুহাতে যেতে হয় খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের নয়মাইল ত্রিপুরা পাড়া এলাকার পাশ দিয়ে। অপরদিকে তৈদুছড়া ঝরনাতেও যেতে হয় একই পাড়ার পাশ দিয়ে। সেক্ষেত্রে পর্যটকগন বাদুরগুহা ও তৈদুছড়া ঝরনা দেখার একসাথে পরিকল্পনা করলে সুবিধা হবে এবং দীঘিনালায় প্রকৃতিক দুইটি সৌন্দর্য একসাথে উপভোগ করতে পারবেন।

রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়ার কার্বারী (পাড়া প্রধান) গুনধর ত্রিপুরা জানান, পাড়ায় পৌছা পর্যন্ত পুরো পথ ইটসলিং রয়েছে। তবে কয়েক জায়গায় ইট সরে গিয়ে কিছুটা নষ্ট হয়েছে সে জায়গাগুলি সংস্কার করলে সুবিধা হবে। এছাড়া গুহার পথে এক কিলোমিটারের কম কাচা সড়ক, সেটিতেও ইটসলিং করলে আরো ভাল হবে। এরপর হাটা পথ মাত্র ১০-১৫ মিনিটের তাই পর্যটকদের সময় ও কষ্টও অনেক কম হবে। কিন্তু ঝরনার পাশ দিয়ে লতা বেয়ে নামতে হয়, যে কারণে নারী বা শিশুদের জন্য যাওয়া সম্ভব হবে না।

যেভাবে যেতে হয় গুহাতেঃ

খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের ঠিক মধ্যবর্তী এলাকা ৮ মাইলের পাশেই দীঘিনালা-খাগড়াছড়ির সীমান্ত সাইনবোর্ড। এরপাশ দিয়েই পূর্বদক্ষিণ দিকে চলে গেছে ইটসলিং সড়ক। এ সড়ক দিয়ে ৬ কি.মি. যেতে হবে; যাওয়া যাবে জীপ (স্থানীয় ভাষায় চাঁদের গাড়ি) বা মোটর সাইকেলে। পৌছবেন রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়ায়, যেখানে ত্রিপুরা জনগোষ্ঠীর বসবাস। সেখান থেকে আরো ১ কি.মি কাঁচা সড়কে যাবে আপনাদের বহনকৃত গাড়ি। এরপর পাহাড় বেয়ে হেটে নামতে হবে মেরুং ছড়াতে। ছড়া দিয়ে কিছুদূর এগুলেই শুনা যাবে ঝরনার ছল ছল আওয়াজ। এ ঝরনার পাশ ঘেঁষে পাহাড়ি লতা ঝুলছে, সে লতা ধরেই বেয়ে নিচে নামার পর ছড়া দিয়ে ১০০ গজের মতো সামনে এগুলেই বাম পাশে গুহার প্রবেশ মুখ। তবে বুনো পথে ভুল না করার জন্য রথিচন্দ্র কার্বারী পাড়া থেকে কোনো গাইডার নিয়ে যাওয়াই ভাল।

-সিভয়েস/এসসি

আরও পড়ুন

সাধারণ কাশি-জ্বরে এন্টিবায়োটিক, নষ্ট হচ্ছে শরীরের এন্টিবডি

বিশ্ব মহামারী নভেল করোনা (সার্স কোভ-২) ভাইরাস প্রতিরোধে এখনও কোনো ওষুধ বিস্তারিত

অক্সিজেন সংকটে নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে ‌‘চট্টগ্রামের’

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর থেকে চারদিকে আইসিইউ সংকট নিয়ে চলছে বিস্তারিত

প্রস্তুত হয়নি ইউএসটিসি-ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল, দিতে হবে চিকিৎসা ব্যয় 

চট্টগ্রাম নগরের বেসরকারি বৃহৎ দুটি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসা চালুর সরকারি বিস্তারিত

মুখেই ফ্রন্টফাইটার, জে. হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের বেতন 'বন্ধ' ৫ মাস

কোভিড হাসপাতাল ঘোষিত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল। চট্টগ্রামে করোনা বিস্তারিত

অনাদরে থাকা হাসপাতালটিই এখন শেষ ভরসাস্থল

হাসাপাতাল সড়কেই গাড়ির লম্বা লাইন, মূল ফটকে প্রতিদিন ভেসে বেড়ায় ময়লার ভাগাড়, বিস্তারিত

ক্লিনিকে করোনা চিকিৎসা, সরকারি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সংশয়

চট্টগ্রাম মহানগরীর বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ৪ হাজার ১৫৭টি শয্যা থাকলেও বিস্তারিত

চট্টগ্রামে মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে বিলবোর্ড, মেয়রের কড়া হুঁশিয়ারি

বন্দর নগরী চট্টগ্রামের প্রধান সড়কে গত কয়েক বছর ধরে নয়নভরে সবুজ প্রকৃতি বিস্তারিত

করোনা/টিউশনি বন্ধে জীবিকা নিয়ে গৃহশিক্ষকদের কপালে চিন্তার ভাজ

টানা লকডাউনে টিউশনি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন গৃহশিক্ষকেরা। করোনা রোধ বিস্তারিত

করোনাকাল/ ইফতার বাজারে নেই সেই জৌলুশ, পাড়ার দোকানে মানছে না নিয়ম

সারাদেশে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) বিস্তার ঠেকাতে লকডাউন চলার মধ্যেই বিস্তারিত

সর্বশেষ

লোহাগাড়ায় গোপন বৈঠক থেকে 'নব্য জেমবি' নেতা গ্রেফতার

লোহাগাড়ায় গোপন বৈঠক ও প্রশিক্ষণ চলাকালে আব্দুল কাইয়ুম (২৩) নামের এক যুবককে বিস্তারিত

করোনায় বিধ্বস্ত চসিকের রাজস্বখাত

বিধ্বংসী করোনায় মাটিতে মিশেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) রাজস্ব বিস্তারিত

বান্দরবানে সন্ত্রাসী হামলায় গুলিবিদ্ধ ২ জন চমেকে ভর্তি

বান্দরবানে আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে অস্ত্রধারী দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে বিস্তারিত

করোনা জয় করে বাসায় ফিরেছেন রানা দাশগুপ্ত

কোভিড-১৯ মুক্ত হয়ে বাসায় ফিরেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি