image

আজ, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০ ,


‘সাংবাদিক পকেটে রাখি, পরিচয় দিলে বেহুশ’

‘সাংবাদিক পকেটে রাখি, পরিচয় দিলে বেহুশ’

ফাইল ছবি

প্রতিদিন সকালে হাঁটতে বের হই। আজকে তার ব্যতিক্রম না। হাঁটা শেষে জিইসি মোড় থেকে রিকশা নিয়ে খুলশির বাসায় ফিরছিলাম। রিকশাওয়ালাকে বললাম, খুলশি যাবে কি না? ওনি বললেন, যাবো। তবে রিকশার গদি নিয়ে ফেলছে। কেনো জানতে চাইলে রিকশা চালক বলল, আমি জানি না। ওপার থেকে এসেই দাঁড়িয়েছি। গদি নিয়ে ফেলছে। একটু নিয়ে দেন না ভাই।

পাশে দাঁড়ানো ট্রাফিক কনস্টেবলকে বললাম ওনার গদিটা একটু দিয়ে দেন, আমি সাথে নিয়ে যাচ্ছি গা। উত্তরে ওই কনস্টেবল বলল, যদি আপনার ক্ষমতা বেশি হয়, তাহলে নিয়ে আসেন। দেখিয়ে দিলেন ফুটপাত দখল করে image নির্মাণ করা পুলিশ বক্সের দিকে গেলামও। দেখি ততক্ষণে ট্রাফিক সার্জেন্ট বের হয়ে যাচ্ছে। ওনাকে অনুসরণ করতেই দেখলাম। আরেকজন রিকশাওয়ালাকে বলছেন, দুইঘণ্টা পর গদি দিবো। এই দুইঘণ্টা এখানে ডিউটি করতে হবে।

পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলাম আমি। কথা বলার অনুমতি চাইলাম, বললেন একজনের সাথে কথা বলতেছি। ওনার কথা শেষে আমি বললাম, এই রিকশাওয়ালার বোধহয় গদি নিয়েছেন। ওনি আমার সাথে চলে যাবে। উত্তরে ওনি না দেওয়া যাবে না বললেন। পরে জানতে চাইলেন আমি কে? নিজের পরিচয় দিলাম। আইডি কার্ড দেখতে চাইলেন দেখালাম। তৎক্ষণে ওনার চিল্লানির কারণে বিশেক-ত্রিশজন মানুষের জটলা হয়ে গেছে। বলেই যাচ্ছেন, আপনারা সাংবাদিকরা যানজট লাগলেও বলবেন, পরিষ্কারও করতে দিবেন না।

ওহ হ্যাঁ, ওনি যখন রিকশা চালককে দুই ঘণ্টা ডিউটি করতে হবে বললেন, তখন আমি জানতে চেয়েছে, এটা আপনি পারেন কি না? আইন ভঙ্গ করলে আইনুযায়ী শাস্তি দিবেন। আপনার চা-পানি টানার ডিউটি কেন রিকশা চালক করবে? প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে উল্টো আমাকে ভুয়া বললেন। সাথে আরেকজন পু্লিশ আসেই বললেন, বাঁ হাত ঢুকাদ্দে। থানাত লই যায়। সরকারি কাজে বাঁধা দিচ্ছে। এ রকম সাংবাদিক পকেটে রাখি। আমাদের হাতে যত সাংবাদিক আছে তাদের পরিচয় দিলে বেহুশ হয়ে যাবে। অবশ্য ওই পু্লিশ সদস্য কথার সাথে ফেসবুক লাইভ অন করে আমাকে বলে, বলেন কি বলবেন? পরিস্থিতি অসম্মানজনক দেখে চলে আসতে চাইলাম। না আসতেও দিবে না। রিকশা ধরে রেখে মানুষ জটলা করে আটকেই রাখলেন।

যারা আমাকে চেনেন তারা জানেন, আমি ব্যবহারর কতটা অভদ্রতামি করি! এক পু্লিশ অফিসারকে ফোন দিয়ে ওখান থেকে বাসায় আসলাম।

(ওয়াসিম আহমেদ’র ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

-সিভয়েস/এমএম

আরও পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে তৃণমূল কর্মীরা রাজপথে আছি 

প্রিয় নেত্রী হাসু আপা, আমার সালাম নিবেন। আশা করি ভালো আছেন, আমরা আপনার বিস্তারিত

মঞ্জুরের মনোনয়ন সংগ্রহে ফেসবুকে উত্তাপ!

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিলেন বিস্তারিত

রবি সিমে অভিযোগের পাহাড়, ফেসবুকে সমালোচনার ঝড়!

রবি সিমের প্রতারণার ফাঁদে পড়ে ক্ষিপ্ত হয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বিস্তারিত

অদ্ভুত বাস্তবতা!

যে পোস্ট অফিসে একটা মানি অর্ডার আসার জন্য তীর্থের কাকের মত জনতারা অপেক্ষা বিস্তারিত

সাজানো দুর্ঘটনার অপেক্ষায়!

লাল ব্রীজটির নাম কালুরঘাট সেতু। অনেক কথা জড়িয়ে আছে এই ব্রীজটিকে নিয়ে। বিস্তারিত

জিইসিতে বেড়ে গেছে ছিনতাইকারীদের দৌরাত্ম্য

চট্টগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে বাড়ছে ছিনতাইকারীদের দৌরাত্ম্য। বিস্তারিত

বঙ্গবন্ধু বঙ্গ-ধাত্রীর শ্রেষ্ঠ সন্তান

বঙ্গবন্ধু, যার আরেক নাম বাংলাদেশ। টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া। উর্বরতার পলিতে বিস্তারিত

পুলিশই ভরসা: ৬ মাস পর চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার

২০১৮ সালের ৩০শে ডিসেম্বর। দেশজুড়ে চলছিল জাতীয় নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। সেদিন বিস্তারিত

কুড়িয়ে পাওয়া 'লাখ টাকার সম্পদ' ফিরিয়ে দিলেন দিনমজুর

কুড়িয়ে পাওয়া 'লাখ টাকার সম্পদ' ফিরিয়ে দিলেন দিনমজুর। গতকাল জিমনোসিয়াম বিস্তারিত

সর্বশেষ

শোক দিবসে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা

জাতীয় শোক দিবসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে বিস্তারিত

শোক দিবসে চমেক ছাত্রলীগের দুস্থদের খাদ্য বিতরণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় বিস্তারিত

‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শই হোক জাতির মূলমন্ত্র’

করোনা আইসোলেশন সেন্টারের মুখপাত্র এডভোকেট জিনাত সোহানা চৌধুরী বিস্তারিত

বান্দরবানে নীলাচল পর্যটন কেন্দ্র পরিদর্শনে বিমুগ্ধ বীর বাহাদুর

করোনা মহামারীর প্রাদুর্ভাব পেরিয়ে দীর্ঘ ৫ মাস বন্ধের পর বান্দরবানের বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি