image

আজ, শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯ ,


ক্ষতি পোষানোর আশায় মৎস্যজীবীরা, ৬ দিনেই ধরা ১৫১ মেট্রিক টন মাছ

ক্ষতি পোষানোর আশায় মৎস্যজীবীরা, ৬ দিনেই ধরা ১৫১ মেট্রিক টন মাছ

ছবি: সিভয়েস

মৎস্য সম্পদ রক্ষার্থে ২২ (৯ থেকে ৩০ অক্টোবর) দিন নিষেধাজ্ঞা শেষে পুনরায় সমুদ্রে মাছ ধরতে যাওয়া জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালি ইলিশ সহ নানা প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ। বন্ধ শেষে মাত্র ৬ দিনে ধরা পড়েছে ১৫১ মেট্রিক টন সামুদ্রিক মাছ। যা গত বছরের তুলনায় ৯৪ মেট্রিকটন বেশি। আর ওখান থেকেই ২০ টন বিদেশে যাচ্ছে বলে জানান মদস্য অবতরণ কেন্দ্র। 

সমুদ্রে প্রচুর মাছ পাওয়ায় আনন্দিত দীর্ঘদিন কষ্টে থাকা জেলে, বোটমালিকসহ মৎস্য শিল্পের সাথে জড়িতরা। সাথে মাছের দাম হাতের নাগালে থাকায় খুশি ক্রেতারা।

মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে সরেজমিনে image গিয়ে দেখা যায়, কদিন আগেও নীরব-নিস্তব্ধ থাকা মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র ফিরে পেয়েছে প্রাণ চাঞ্চলতা। প্রায় কয়েক হাজার মানুষের ব্যস্ত সময় কাটছে ট্রলার থেকে মাছ নামানো, ঝুঁড়ি নিয়ে একজায়গা থেকে অন্যজায়গায় মাছ সরানো, মাছের স্তূপ করে ব্যবসায়ীদের দাম-দর হাঁকানো, দেশের বিভিন্ন প্রান্তে মাছ পাঠাতে ট্রাকে মাছ বোঝাই, বরফ দিয়ে পেকিটিং করা সহ নানা কাজে।

জেলেদের মধ্যে সাইফুল ইসলাম জানান, যে ২২ দিন মাছ ধরা বন্ধ ছিল সেই দিনগুলো ছিল আমার কাছে ২২ বছরের সমান। এমনিতে আমারা কোম্পানির কাছ থেকে নেওয়া ঋণের জালে আটকা পড়েছি। তার মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত জেলেদের জন্য বরাদ্দকৃত ২০ কেজি চালও পাইনি।  বন্ধ শেষে সাগরে প্রচুর মাছ ধরা পড়ছে। আর এভাবে মাছ পড়লে আমরা ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারব।

ফিশারিঘাটে মাছ কিনতে আসা রফিকুল ইসলাম জানান, মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে দেওয়ার ফিশারি ঘাটে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশসহ বিভিন্ন মাছ আসছে। দামও সহনীয়। তাই বেশ কিছু মাছ কিনে নিলাম।

ট্রলার মালিক ফরিদুল ইসলাম জানান, বর্তমান সময়ে একটি ট্রলার সাগরে পাঠাতে খরচ হয় দুই থেকে তিন লাখ টাকা। অনেক সময় সাগরে মাছ পাওয়া যায়, আবার অনেক সময় পাওয়া যায় না। বন্ধ শেষে এখন প্রচুর মাছ পাওয়া যাচ্ছে।

মৎস্য সম্পদ রক্ষার্থে সরকারের পদক্ষেপকে ধন্যবাদ জানিয়ে কক্সবাজার জেলা ফিশিং বোট মালিক সমিতির সিনিয়র সহসভাপতি ও কক্সবাজার মৎস্য ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সভাপতি মো. নুরুল ইসলাম চিশতি জানান, বন্ধের দিনগুলোতে মৎস্য শিল্পের সাথে জড়িতদের খুবই কষ্টে দিন কাটে। ওই সময়টাতে তাদেরকে যেন সরকারের সহযোগিতা নিশ্চিত করা হয়।

মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রর মার্কেটিং অফিসার দেলোয়ার হোছেন জানান,  ২২ দিন মাছ শিকার বন্ধ থাকায় মৎস্য আহরণ বৃদ্ধি পেয়েছে। ৩১ অক্টোবর ফিশারি ঘাটে লেন্ডিং হয়েছে ৬ টন মাছ, ১ অক্টোবর ১১ টন, ২ তারিখে ২৫ টন, ৩ তারিখে ৫০ টন। এভাবে দিন দিন মাছের পরিমাণ বৃদ্ধি পেতে থাকছে।

কক্সবাজার মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ ইসানুল হক জানান, নিষেধাজ্ঞা শেষে গত ৫ দিনে ইলিশ ও রূপচাঁদাসহ ১৫১ মেট্রিক টন সামুদ্রিক মাছ আহরণ হয়েছে মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে। সেই জায়গায় গত বছর (২০১৮ সালে) মাছ আহরণ হয়েছিল মাত্র ৫৭ মেট্রিকটন। হিসাব করে দেখা যায় এ বছর ৯৪ মেট্রিকটন মাছ বেশি পাওয়া গেছে। তার মধ্যে শুধু ইলিশই হচ্ছে ২৮ মেট্রিক টন ও রূপচাঁদা ১৩ মেট্রিক টন। বাকিগুলো অন্যান্য সামুদ্রিক মাছ। 

সমুদ্রেপ্রাপ্ত এসব মাছ থেকে দেশের চাহিদা মিটিয়ে ২০ মেট্রিক টন মাছ বিদেশে রপ্তানির জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। সুতরাং প্রতিবছর এইভাবে ২২ দিন মাছ ধরা নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়ন করলে মৎস্য সম্পদ বৃদ্ধি পাবে।

সিভয়েস/আই

আরও পড়ুন

শব্দদূষণের মাত্রা রেকর্ডেই সীমাবদ্ধ পরিবেশ অধিদপ্তর

শব্দদূষণের মাত্রা রেকর্ড করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ পরিবেশ অধিদপ্তরের বিস্তারিত

বায়ু দূষণে বাড়ছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি

যান্ত্রিক যুগের কারণে বাস, ট্রাক, ট্রাক্টর, স্যালো ইঞ্জিনবাহিত যানবাহন বিস্তারিত

থমকে আছে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ !

জটিলতার কারণে বন্ধ রয়েছে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ। তবে বিস্তারিত

৮ ডুবুরি দিয়ে চলছে ১১ জেলার কার্যক্রম

চট্টগ্রাম বিভাগের ১১ জেলার ৩ কোটি মানুষের জলপথে দুর্ঘটনায় উদ্ধার কাজে বিস্তারিত

 সংস্কৃতিমনাদের আশার আলো মুসলিম হলের নতুন কমপ্লেক্স

আধুনিক, মানসম্মত এবং সাংস্কৃতিক অনুকূল পরিবেশ সম্পন্ন মিলানায়াতনের বিস্তারিত

খাগড়াছড়িতে বিদ্যুৎ উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনায় কাজে ধীরগতি

প্রায় সাড়ে ৫শ' কোটি টাকার ‘'তিনটি পার্বত্য জেলায় বিদ্যুৎ বিতরণ বিস্তারিত

চট্টগ্রামে অগ্নিঝুঁকিতে ৪১ এলাকা

অগ্নিকান্ডের ঘটনা যেন থামছেই না। সেই সাথে হুড়হুড়িয়ে বাড়ছে অগ্নিকান্ডে বিস্তারিত

৭ জন ডাক্তার দিয়েই চলছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল

১শ' শয্যা বিশিষ্ট চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা চলছে বিস্তারিত

চমেকে 'গৃহের আলো'র নতুন উদ্যোগ,অজ্ঞাত রোগীদের মিলবে আশ্রয়

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বজনহীন অজ্ঞাত রোগীরা চিকিৎসা শেষে বিস্তারিত

সর্বশেষ

র‌্যালি জুড়ে আবেগ মিশালি উচ্ছ্বাস

দেশের ভিন্ন ভিন্ন প্রান্ত পেরিয়ে ছুটে আসার উদ্যেশ্য কী? উত্তরে বলেছেন, জমাট বিস্তারিত

নদী ড্রেজিংয়ের অর্ডার স্থানীয় প্রশাসনের রক্ষাকবচ!

সাতকানিয়ায় যুবলীগ নেতা আহম্মদ হোসেনের বিরুদ্ধে বালু উত্তোলনের অভিযোগ বিস্তারিত

সানি হত্যা মামলার দুই আসামি কারাগারে

নগরে স্কুলছাত্র জাকির হোসেন (সানি) হত্যা মামলায় দুই আসামির জামিন আবেদন বিস্তারিত

ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজের মৃত্যুবার্ষিকীতে ছাত্রলীগের একাংশের স্মরণসভা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ সম্পাদক দিয়াজ বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি