image

আজ, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯ ,


চট্টগ্রাম-দোহাজারী রেলপথে বেড়েছে যাত্রী, বগি বাড়ানোর দাবি

চট্টগ্রাম-দোহাজারী রেলপথে বেড়েছে যাত্রী, বগি বাড়ানোর দাবি

যাত্রীদের ভিড় চট্টগ্রাম- দোহাজারী রেলপথে

চট্টগ্রাম-দোহাজারী রেলপথে বেড়েছে যাত্রী। সে সাথে বেড়েছে আয়। এ পথে ৫টি বগি নিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করছে দুই জোড়া যাত্রীবাহী রেল। যাত্রী বাড়ায় গাদাগাদি করে রেলবগিতে যাতায়াত করছেন দক্ষিণ চট্টগ্রামের মানুষ। অনেকে ছাদে উঠে পড়ছেন বগিতে ঠাঁই না হওয়ায়। আবার অনেক বৃদ্ধ ও মহিলা ট্রেনে উঠতে না পেরে হতাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন । 

যাত্রীর চেয়ে রেলের বগি কম হওয়ায় উপচেপড়া ভিড়। এতে নির্ধারিত গন্তব্য যাত্রায় নারী, বৃদ্ধ ও শিশুদের ভোগান্তি চরমে পৌঁছে। রেলযাত্রীদের দাবি, এ ভোগান্তি লাঘবে যদি আরো কয়েকটি বগি বাড়ানো হয় এবং আরও এক image জোড়া ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থা করা হয় তাহলে   যাত্রীদের যাত্রা হতো স্বস্তিদায়ক।

রেলওয়ে ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম থেকে দোহাজারি পর্যন্ত ৪৭ কিলোমিটার পথটি রেলের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ রুট। এক সময় চার জোড়া যাত্রীবাহী রেল আসা-যাওয়া করতো। কিন্তু ট্রেনের কোচ ও ইঞ্জিন সংকটের কারণে ধীরে ধীরে সার্ভিস কমিয়ে দেয়া হয়। নব্বইয়ের দশকে সংস্কারবিহীন এ পথে যাত্রীবাহী রেল এক জোড়ায় নামিয়ে আনা হয়। এতে বিপাকে পড়েন দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রীসাধারণ। 

গত একদশকে রেল লাইন, সেতু, রেল গেইট ও স্টেশন নির্মাণের মধ্য দিয়ে নতুন রূপ দেওয়া হয় এ রেলপথকে। চট্টগ্রামবাসীর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের ৩ নভেম্বর আরো একজোড়া রেল যুক্ত করা হয়। ফলে দুই জোড়া রেল সকাল-বিকেল এ পথে চলাচল শুরু করলে রেলমুখী হয় দক্ষিণ চট্টগ্রামের যাত্রীরা। 

বোয়ালখালী উপজেলা সদরের বাসিন্দা মো. আজিজুর রহমান বলেন, সড়ক পথে নগর যাতায়াত খুবই কষ্টকর। বোয়ালখালী নগরের কাছের উপজেলা হলেও কালুরঘাট সেতুতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা জ্যামে আটকা পড়তে হয় ও বোয়ালখালীতে গত দুই দশক ধরে বাস সার্ভিস বন্ধ । এসব ঝক্কি ঝামেলা এড়িয়ে সময় ও অর্থ বাঁচাতে রেলে যাতায়াত নিরাপদ। এ সময় পাশে থাকা আরেক যাত্রী আকুবদন্ডী গ্রামের সাগর নাথ বলেন, যানজটমুক্ত ও কম খরচে নিরাপদ যাতায়াত ব্যবস্থা হচ্ছে রেল। এ রুটে যদি আর এক জোড়া ট্রেন চলাচল করতো, তাহলে সড়ক পথে চাপ কমতো এবং দুর্ঘটনাও অনেকাংশে হ্রাস পেতো। 

বগি বাড়ানোর দাবি জানিয়ে সরকারি চাকরিজীবী মো. আমজাদ হোসেন বলেন, প্রতিদিনই যাত্রী ভিড় থাকছে এ রেলপথে। বিশেষ করে সকালে নগরমুখী রেলে অনেক যাত্রীর ভিড় থাকে। এ সময় অনেকেই ট্রেনে উঠতেই পারে না। বগি কম থাকায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের।

গোমদন্ডি স্টেশন এলাকার আজম খান জানান, সকাল ও সন্ধ্যায় প্রচুর যাত্রী নিয়ে চলাচল করছে ৪টি রেল। কালুরঘাট সেতুর ভোগান্তি এড়াতে রেলমুখী হয়েছে বোয়ালখালীর মানুষজন। সে অনুযায়ী যদি সেবাও বাড়ানো হয় তবে সরকারি রাজস্ব আরো বাড়বে বলে তিনি মনে করেন।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম শহর থেকে দোহাজারী পর্যন্ত রয়েছে ১৭টি স্টেশন। এর মধ্যে রয়েছে কালুরঘাট সেতুর পর গোমদন্ডি, বেঙ্গুরা, ধলঘাট, খানমোহনা, পটিয়া, চক্রশালা, খরনা, কাঞ্চন নগর, হাশিমপুর, খাঁনহাট ও দোহাজারী স্টেশন। গোমদন্ডি স্টেশন থেকে দোহাজারী স্টেশন পর্যন্ত প্রতি যাত্রীর টিকিট মূল্য ৮ টাকা ও গোমদন্ডি স্টেশন থেকে চট্টগ্রাম নগরে যাওয়ার টিকিট মূল্য ৬ টাকা।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, এ রেলপথের ১৭টি স্টেশনের মধ্যে গোমদন্ডি রেলওয়ে স্টেশনে গত বছরের অক্টোবর মাসে সাড়ে ১৬ হাজার টাকার টিকিট বিক্রি হয়েছে, যাত্রী ছিলেন ৩ হাজার ১শত ৫৭ জন। দুই জোড়া রেল চালুর পর নভেম্বর মাসে টিকিট বিক্রি হয়েছে ২৭ হাজার ৯শত ১৫ টাকার ও যাত্রী ছিলেন ৫হাজার ৯৭ জন। ডিসেম্বর মাসে টিকিট বিক্রি হয়েছে ৪৩ হাজার ৬শত ৫৮ টাকা,  যাত্রী ছিলেন ৭হাজার ৮ শত ২১ জন। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মে পর্যন্ত টিকিট বিক্রি হয়েছে ২ লক্ষ ১৩ হাজার ১শত ২৩ টাকার ও যাত্রী ছিলেন ৩৬ হাজার ৫৭ জন। 

গোমদন্ডি রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, আগের তুলনায় এ স্টেশনে যাত্রী বেড়েছে দ্বিগুণ। রেলযাত্রীরা এখন অনেক সচেতন। নিজে তো রেলের টিকিট কাটেনই পাশাপাশি অন্যযাত্রীও টিকিট নিয়েছেন কি না জানতে চান যাত্রীরা।

তিনি আরো বলেন,  আপ-ডাউন রেলে ৫টি বগি নিয়মিত আসা যাওয়া করছে। যাত্রীদের কথা বিবেচনা নিয়ে আরো দুইটি বগি বাড়ানো হলে উপকৃত হতো যাত্রীরা।

সিভয়েস/আই

আরও পড়ুন

 সংস্কৃতিমনাদের আশার আলো মুসলিম হলের নতুন কমপ্লেক্স

আধুনিক, মানসম্মত এবং সাংস্কৃতিক অনুকূল পরিবেশ সম্পন্ন মিলানায়াতনের বিস্তারিত

খাগড়াছড়িতে বিদ্যুৎ উন্নয়ন প্রকল্পে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনায় কাজে ধীরগতি

প্রায় সাড়ে ৫শ' কোটি টাকার ‘'তিনটি পার্বত্য জেলায় বিদ্যুৎ বিতরণ বিস্তারিত

চট্টগ্রামে অগ্নিঝুঁকিতে ৪১ এলাকা

অগ্নিকান্ডের ঘটনা যেন থামছেই না। সেই সাথে হুড়হুড়িয়ে বাড়ছে অগ্নিকান্ডে বিস্তারিত

ক্ষতি পোষানোর আশায় মৎস্যজীবীরা, ৬ দিনেই ধরা ১৫১ মেট্রিক টন মাছ

মৎস্য সম্পদ রক্ষার্থে ২২ (৯ থেকে ৩০ অক্টোবর) দিন নিষেধাজ্ঞা শেষে পুনরায় বিস্তারিত

৭ জন ডাক্তার দিয়েই চলছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল

১শ' শয্যা বিশিষ্ট চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা চলছে বিস্তারিত

চমেকে 'গৃহের আলো'র নতুন উদ্যোগ,অজ্ঞাত রোগীদের মিলবে আশ্রয়

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বজনহীন অজ্ঞাত রোগীরা চিকিৎসা শেষে বিস্তারিত

সহজলভ্য ড্রোনে বাড়ছে ঝুঁকি, কঠোর অবস্থানে সিএমপি

চট্টগ্রামের আকাশে বাড়েছ ড্রোনের ব্যবহার। বৈধ কিংবা অবৈধ উপায়ে বিভিন্ন বিস্তারিত

মানুষের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছাচ্ছে কমিউনিটি ক্লিনিক, অনুমোদনের অপেক্ষায় আরো ৩টি

সারাদেশের মত চট্টগ্রামেও স্বাস্থ্যসেবাকে প্রান্তিক পর্যায়ে জনগণের বিস্তারিত

উখিয়ায় ধানচাষে পোকার আক্রমণ, দিশেহারা চাষিরা 

উখিয়ায় চলতি আমন মৌসুমে চাষাবাদে দেখা দিয়েছে ব্যাপক পোকার আক্রমণ। ধান বিস্তারিত

সর্বশেষ

ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিং তালিকাতেও সাকিবের নাম নেই!

টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে অলরাউন্ডারদের মধ্যে দুইয়ে থাকা সাকিব আল হাসান বিস্তারিত

বোয়ালখালীতে আ.লীগের কর্মী সমাবেশ

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে কর্মী সম্মেলনে ‘দোয়া’ চেয়েছেন দক্ষিণ জেলা বিস্তারিত

চেয়ার মারামারিতে যুবলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সভা পণ্ড

চেয়ার মারামারিতে পণ্ড হয়ে গেছে লালদিঘী মাঠে অনুষ্ঠিত যুবলীগের ৪৭তম বিস্তারিত

চমেক হাসপাতালে যুক্ত হয়েছে আন্তর্জাতিকমানের এম্বুল্যান্স

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে যুক্ত হয়েছে আন্তর্জাতিকমানের বিস্তারিত

সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত, এই ওয়েব সাইটের যেকোন লিখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ন বেআইনি